সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ
সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রাজশাহীতে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

মোঃ আব্দুস সালাম গাজীপুর প্রতিনিধি:

রাজশাহী নগরীর তেরখাদিয়া এলাকা থেকে আয়েশা জান্নাত নদী (২১) নামে এক কলেজ ছাত্রীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নদীকে হত্যার অভিযোগে তার স্বামী রাকিবুল হাসিব সজিবকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নদীর মায়ের অভিযোগ, তার মেয়েকে বালিশচাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে আত্মহত্যার নাটক সাজিয়েছে নদীর শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এঘটনায় রাজশাহীর রাজপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাদ দিয়ে রাজশাহীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিদ্দিকুর রহমান জানান, দেড় বছর আগে নওগাঁর সান্তাহার এলাকার সারোয়ার হোসেনের ছেলে সজিবের সঙ্গে বিয়ে হয় নদীর। তারা থাকতো রাজশাহীর তেরখাদিয়া এলাকায়। বিয়ের সময় নদীর শর্ত ছিল নদীকে লেখাপড়া করাবে। কিন্তু বিয়ের পর তার স্বামী নদীর লেখাপড়ায় বাধা দেন। শুরু করে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতো সজিব।

এক পর্যায়ে ছয় মাস আগে রাগ করে মায়ের বাড়ি চলে যান নদী। এর পর আবারও বুঝিয়ে নদীকে শ্বশুরবাড়িতে পাঠান মা। ওসি জানান, কলেজছাত্রী নদীর মৃত্যুর ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচণার অভিযোগে তার সৎবাবা গোলাম মোস্তফা মামলা করেছেন। আমরা প্রাথমিক তদন্তে সজিবের বিরুদ্ধে নদীর ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের প্রমাণ পেয়েছি। এ কারণে তাকে এ মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। নদীর লাশ ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরেই তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে জানা যাবে।

নদীর মা আঞ্জুয়ারা বেগম জানান, সাত বছর বয়সে নদী বাবা হারান। এরপর আমি অন্যত্র বিয়ে করি। নদী আমাদের সঙ্গেই থাকত। কিন্তু গরীবের সংসার। আমি সামান্য বেতনে আয়ার চাকরি করি। এ কারণে নদী টিউশনি করে নিজের লেখাপড়ার খরচ চালাত। নদী রাজশাহী মহিলা কলেজে বাংলায় অনার্স তৃতীয়বর্ষের ছাত্রী ছিল। স্বপ্ন ছিল লেখাপড়া শেষ করে শিক্ষক হবে। কিন্তু তার আগেই তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করল। তার গলাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *