সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ
সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

যশোরে ১২ দফা নিয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমাবেশ

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

স্বীকৃতি বিশ্বাস, যশোরঃ

ফ্যাসিবাদ, দূর্ণীতি,দুঃশাসন, লুটপাট,নারী নির্যাতন বন্ধসহ দল নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি নিয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
আজ বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বিকালে বাম গণতান্ত্রিক জোট যশোর জেলার আয়োজনে আজকের এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের জেলা সম্পাদক কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড তসলিম উর রহমানের সঞ্চালনায় ও বাম গণতান্ত্রিক জোট যশোর জেলার সমন্বয়ক কমরেড আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক বাসদ নেতা কমরেড বজলুর রশিদ ফিরোজ, বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কমরেড ইকবাল কবির জাহিদ, সিপিবির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড শাহিনুর রহমান , বাসদ মার্কসবাদীর কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক মাসুদ রানা, সিপিবির জেলা সভাপতি কমরেড আবুল কালাম, বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড জিল্লুর রহমান ভিটু, বাসদ মার্কসবাদীর জেলা সমন্বয়ক কমরেড হাচিনুর রহমান প্রমুখ।
বক্তরা বলেন-এই সরকারের উন্নয়ন হলো আছাড় বিহীন দা। যশোরে মেডিকেল কলেজ হয়েছে, কিন্তু হাসপাতালের জন্য প্রয়োজনীয় ৫শ শয্যা হয় নাই । আছার ছারা দা দিয়ে যেমন কাজ হয় না। তেমনি হাসপাতাল ছাড়া মেডিকেল কলেজ চলে না।
আরও বলেন -৩০৫ কোটি টাকা ব্যয় করে ১২০০ শতক জায়গায় আইটি পার্ক করে এখন সেটাকে রিসোর্টে রূপান্তরিত করা হচ্ছে। ভবদহে টিআরএম না করে নদীর পানি সেচার নামে কোটি কোটি টাকার অপচয় ও লুটপাট করা হচ্ছে। শত শত কোটি টাকা ব্যয় করে ২ লেন সড়কের এত উন্নয়ন করেছে ফলে যশোর খুলনা মহাসড়ক ৮ লেনে উন্নত হয়েছে। খুলনা সড়কে ভ্রমন করলে ও নৌপথের অভিজ্ঞতা অর্জন করলে দেখবেন যশোর-খুলনা মহা সড়কের বেহাল দশা ও যশোরের প্রবাহমান ভৈরব নদকে ৩ টি খালে পরিনত করা হয়েছে যা সত্যি দূর্ভাগ্যজনক।
এছাড়া চাল, ডাল, আটা, চিনি বলেন আর বিদ্যুৎ,গ্যাস সব কিছুর দাম দফায় দফায় বড়ানো হয়েছে।সারের দাম বাড়ছে আবার মৌসুমে সার পাওয়া যাচ্ছে না। ১৩ বছরে ১১শ লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে। কিন্তু পাচারকৃত অর্থ ফেরত আনার বিষয়ে কোন সুনির্দিষ্ট কোন পদক্ষেপ নেই অথচ কয়েক হাজার টাকা ঋণ নেওয়া জন্য কৃষকের মাজায় দড়ি পরানো হচ্ছে। সরকারি পাটকল,চিনি কল বন্ধ করে দিয়েছে।
এসব কথা বলবেন, লিখবেন,প্রতিবাদ করবেন তাহলে আটক হবেন, গুম হবেন, হামলার শিকার হবেন। গতকাল অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে ৮০% ভোটার ভোট দেয়নি। ভোটকে কোথায় নিয়ে দাঁড় করিয়েছে উন্নয়নের সরকার বুঝুন।
এই দুঃশাসনের হাত থেকে জনগণ মুক্তি চায়। আর তাই বাম গণতান্ত্রিক জোটের আহ্বান, নির্দলীয় তদারকি সরকারের অধিনে নির্বাচন দিয়ে জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার গঠনে সহায়তা করুন।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *