মঙ্গলবার ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

খুনিয়াপালং হতে দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্রসহ রোহিঙ্গা অস্ত্র ব্যবসায়ী নছিম গ্রেফতার।

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

করিম উল্লাহ, প্রতিনিধি উখিয়া

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন সদর এর আভিযানিক দল গোপন সূত্রে অবগত হয়, কক্সবাজার জেলার সদর থানাধীন লিংক রোড হতে একটি সিএনজি যোগে একজন মাদক ব্যবসায়ী মাদক নিয়ে মরিচ্যা বাজারের উদ্দেশ্যে আসছে । উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ এর একটি আভিযানিক দল ২০/০২/২০২৩ খ্রিঃ তারিখ ১৯.৫০ ঘটিকার সময় কক্সবাজার জেলার রামু থানাধীন ০৯নং খুনিয়াপালং ইউপির ০৪নং ওয়ার্ডস্থ পূর্ব ধেছুয়াপালং গ্রামের জনৈক আপন বড়ুয়ার ওয়ার্কসপের সামনে লিংক রোড হতে উখিয়াগামী পাকা রাস্তার উপর চেকপোস্ট স্থাপন করে তল্লাশী অভিযান শুরু করে। তল্লাশীর একপর্যায়ে বর্ণিত গাড়িটি চেকপোস্টের সামনে আসলে গাড়ির পিছনের সিটে বসে থাকা যাত্রী র‌্যাবের উপস্থিতি বুঝতে পেরে তার ডান হাতে থাকে ট্রাভেল ব্যাগসহ কৌশলে পালানোর চেষ্টাকালে আভিযানিক দল কর্তৃক *মোঃ নছিম (২২)(এফডিএমএন)* (এফসিএন নং-১৩০৮৩৫), পিতা-মৃত সৈয়দ আজিম, মাতা-জাহিদা বেগম, সাং-কুতুপালং ক্যাম্প নং-০২, ব্লক-সি, হেড মাঝি মোঃ জাফর, সাইড মাঝি মোঃ খারুল আমিন, থানা-উখিয়া, জেলা-কক্সবাজারকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। তখন উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে ধৃত ব্যক্তির দেহ তল্লাশী করে তার হাতে থাকা ট্রাভেল ব্যাগের ভিতর হতে *দেশীয় তৈরি ০২টি এলজি উদ্ধার* করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত ব্যক্তির বিস্তারিত নাম ঠিকানা প্রকাশসহ তার হেফাজতে থাকা অবৈধ অস্ত্রসমূহ কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানা এলাকা হতে সংগ্রহ করে উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে বহন করছিল মর্মে তথ্য প্রদান করে । জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, উক্ত আসামীর বৈধ কোন পেশা নেই এবং সে অস্ত্রধারী ও পেশাদার অস্ত্র ব্যবসায়ী। এছাড়া স্থানীয়সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ অন্য এলাকা থেকে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকায় অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছে। অদ্য উপরোল্লিখিত আগ্নেয়াস্ত্রসহ র‌্যাব-১৫ এর আভিযানিক দলের কাছে ধৃত হয়।

উদ্ধারকৃত আগ্নেয়াস্ত্রসহ বর্ণিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার রামু থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করা হয়েছে।

Spread the love