বৃহস্পতিবার ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ
বৃহস্পতিবার ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নওগাঁয় ভূয়া নিয়োগপত্র প্রদানের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য আটক

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

তৌফিক তাপস, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি:

নওগাঁর বদলগাছীতে ভূয়া নিয়োগপত্র প্রদানের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। শনিবার সন্ধায় র‌্যাব এক বিশেষ অভিজযান চালিয়ে জেলার বদলগাছীর ভান্ডারপুর এলাকা হতে জাল কাগজপত্রসহ ওই সিন্ডিকেটকে আটক করে।
প্রতারক চক্রের সদস্যরা হলেন জেলার বদলগাছী থানার কেশাইল গ্রামের মোঃ আমজাদ হোসেন এর ছেলে মোঃ নাজমুল হক(২৮),জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর থানার নীচা বাজার (ফকিরপাড়া) গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে মোঃ জামাল উদ্দিন(৬০) এবং পশ্চিম আমট্ট গ্রামের মৃত মুখফুর সরদারের ছেলে মোঃ সালাম সরদার(৫৬)।
আজ সকালে র‌্যাবের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব -৫ সিপিসি ৩ জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্প।
র‌্যাব জানায়, মোঃ নাজমুল, মোঃ জামাল উদ্দিন ও মোঃ সালাম সরদার একটি প্রতারক সিন্ডিকেট হিসাবে কাজ করছে এবং ২০১৬ সাল থেকে দরিদ্র মানুষের সাথে প্রতারণামূলক কর্মকান্ড করছে যেখানে মোঃ নাজমুল হক মুলহোতা। মোঃ নাজমুল হক সমাজসেবা অফিসের পিয়ন হিসেবে অবসরে গেছেন। সে সুযোগ কাজে লাগিয়ে চাকরির নিরাপত্তার মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে কখনো বা সমাজসেবা অফিসের ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে প্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতেন। মোঃ জামাল উদ্দিন ও সালাম সরদার তার সহকারী হিসেবে কাজ করেন এবং জাল কাগজ তৈরি ও টাকা আদায়ের দায়িত্বে ছিলেন। মোঃ নাজমুল হক ২০২২ সালে শহিদুল ইসলামের ছেলে মোঃ সাজুকে চাকরি দেওয়ার জন্য শহিদুল ইসলামের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা নেন। পরে মোঃ জামাল উদ্দিনের মাধ্যমে মিথ্যা নিয়োগপত্র দেন। সাজু আক্কেলপুর সমাজসেবা অফিসে ওই চাকরিতে যোগ দিতে গেলে ওই ভুয়া নিয়োগপত্রের কথা জানতে পারেন। পরে শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পে অভিযোগ করেন। এরপর র‌্যাব-৫ এর একটি অভিযান দল জাল কাগজপত্রসহ ওই সিন্ডিকেটকে আটক করে। এ বিষয়ে ধৃত আসামীগণের বিরুদ্ধে নওগাঁ জেলার বদলগাছী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Spread the love