শনিবার ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ
শনিবার ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রেজিস্ট্রার পদত্যাগের আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ পবিপ্রবিতে

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

এস.এম.সোহান/ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্টঃ

বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারী) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মকর্তা পরিষদের আন্দোলন ও রেজিস্ট্রারের পদত্যাগকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারী পরিষদের নেতৃবৃন্দ এবং রেজিস্ট্রারের অনুসারীদের মধ্যে বেলা ১১ টায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আন্দোলনরত কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা যায়, অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তব্য দেওয়ার সময় আন্দোলনকারীদের কাছ থেকে আচমকাই মাইক কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের গুটিকতক অনুসারী।
এসময় তাদের ভিতর হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তা পরিষদের সভাপতি সাইদুর রহমান জুয়েল ও কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মজিবর রহমান মৃধা সহ আরও অনেকে হামলার শিকার হন বলে জানানো হয়।
একাধিক কর্মকর্তা অভিযোগ করে বলেন, আন্দোলন চলারত অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা জসীমউদ্দিন বাদল, শাহীন হোসেন, শামীম আহমেদ সহ আরও অনেকে অতর্কিত হামলা চালান। আমরা এ হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

তবে, ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এতে হস্তক্ষেপ করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে রেজিস্ট্রারের অনুসারীরা এ আন্দোলনকে ভিত্তিহীন বলে স্লোগান দিতে থাকে। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা মশারফ খন্দকার, শহিদুল ইসলাম সহ আরও অনেকে নেতৃত্ব দেন।

রেজিস্ট্রারের অনুসারীদের নেতৃত্বে থাকা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সবুজ শিকদার গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার ড. কামরুল ইসলাম আমাদের এ এলাকার সন্তান। তাকে বিতর্কিত করার উদ্দেশ্যে কিছু কর্মকর্তা এ অরাজকতা সৃষ্টি করছে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশ অবস্থান নিয়েছে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক ভিপি আব্দুল মান্নান উপজেলা চেয়ারম্যান ড. হারুন-উর-রশিদ সহ আরও অনেক নেতৃবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলরের সাথে আলোচনায় অংশ নিয়েছেন।
সর্বশেষ সংবাদ পাওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ, কর্মকর্তা পরিষদ ও রেজিস্ট্রারের অনুসারীরা অবস্থান কর্মসূচী পালন করছে।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *