মঙ্গলবার ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

স্বল্পতম সময়ে সোনারহাট স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন সেবাও চালু হবে- প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব

আজকের খবর। ব্রেকিং নিউজে।

মোঃ মনিরুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় অবস্থিত সোনাহাট স্থল বন্দরের কার্যক্রম ও এর গতি বাড়ানোর লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ স্থলবন্দর পরিদর্শন করেছেন ও এ সময়ে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসকের আয়োজনে সাড়ে এগারোটার দিকে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

উক্ত মত বিনিময়ে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের একান্ত সচিব মোঃ কায়ছারুল ইসলাম, সচিবের একান্ত সচিব মোহাম্মদ নাজমুল আহসান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক প্রশাসন মোহাম্মদ সাইদুল আরিফ, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার সাবিরুল ইসলাম, রংপুর কাস্টম কমিশনার সুরেশ চন্দ্র বিশ্বাস, কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ, কুড়িগ্রাম অধিনায়ক ২২ বিজেপি আব্দুল মোত্তাকিম , কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম, ভূরুঙ্গামারী উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ নুরুন্নবী চৌধুরী খোকন, নাগেশ্বরী উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা জামান, ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সোনাহাট স্থল বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা, জুয়েল রানা সহ সি এন্ড এফ এজেন্ট এর প্রতিনিধি প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় আমদানি ও রপ্তানি কারক সমিতি ও সি এন্ড এফের নেতৃবৃন্দ জানান, ইমিগ্রেশন চালু না থাকায় ব্যবসায়ী গণের ভোগান্তির কারনে আমদানি রপ্তানি কম হচ্ছে। শুধু তাই নয়, সোনাহাট শুল্ক স্টেশনে সার্ভার সমস্যার কারনে কাস্টম ক্লিয়ারেন্স পেতে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়। বন্দরের রাজস্ব আয় বাড়াতে এসকল সমস্যা সমাধানের দাবীও জানান তারা।

উক্ত মতবিনিময় সভা শেষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া বলেন, সোনাহাট স্থলবন্দরের সাথে যারা সম্পৃক্ত আছে, এখানে কাস্টমস আছে, সি এন্ড এফ এজেন্ট আছে, এখানে সরকারের অন্যান্য সব এজেন্সি আছে, তাদের সাথে আমরা কথা বলেছি। এখানে এখন আমাদের বড় লক্ষ্য হচ্ছে যে, এই জায়গা থেকে আমদানি রপ্তানি বাড়ানোর জন্য যে চেষ্টা সেটা করা, দ্বিতীয় হচ্ছে যে এখানে আপনারা বলছেন ইমিগ্রেশন এর জন্য, এখানে আমাদের সাথে স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের সুরক্ষা সেবা বিভাগ এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগ আছে। আগামী মাসেই ফরেন অফিস কনসাল্ট হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান মন্ত্রীর মুখ্য সচিব আরো জানান, ইতিমধ্যে ইমিগ্রেশন চালুর ব্যাপারে প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে। আগামী মাসেই ভারতের সাথে মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে ইমিগ্রেশেনের বিষয়টি এজেন্ডা হিসাবে রাখা হবে। সেখানে এই ইমিগ্রেশনের কথা এজেন্ডাভূক্ত করা হয়েছে সুতরাং আমরা আশাবাদী যে, স্বল্পতম সময়ে এই ইমিগ্রেশন সেবাও চালু হবে।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, স্বল্পতম সময়ে ইমিগ্রেশন চালু করা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, কুড়িগ্রামের দারিদ্রবিমোচনে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মসুচি বাস্তবায়ন হচ্ছে। এ জেলায় একটি ইপিজেড ও জেটি তৈরির পরিকল্পনাও রয়েছে।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *